Wednesday, 30 April 2014

sex এর প্রতি আমার অনীহা


স্বামী-স্ত্রী গেছে ডাক্তারের কাছে।
স্বামীবললঃ ডাক্তার সাহেব, আমার স্ত্রী ছয় মাস হল আমার সাথেsex করতে চায় না।
ডাক্তার বললেনঃ কেন? আপনি একটু বাইরে যান, আমি একান্তে আপনার স্ত্রীর সাথে কিছু কথা বলতে চাই।
স্বামী চেম্বার থেকে বেরিয়ে যাবার পর

পাপ্পু আর টিনা


পাপ্পু আর টিনা দুজন দুজনের প্রেমে দিওয়ানা।মহল্লার সবার চোখ ফাকি দিয়ে একদিন নির্জন পার্কে গেল দেখা করাতে। দুজন পাশাপাশি হাটতেছিল, কিছুদূর হাটার পর টিনা পাপ্পুকে বলল- “তুমি নিশ্চয় আমার হাত ধরতে চাও?”
পাপ্পু লাজুক ভাবে বলল- “হা, কিন্তু তুমি বুঝলে কি করে?”
টিনা – “তোমার চোখের দিকে তাকিয়ে”
দুজন দুজনার হাত ধরে কিছুক্ষন হাটার পর টিনা পাপ্পুকে বলল-

Tuesday, 29 April 2014

এক গাধা জঙ্গলে বসে কাঁদছে


এক গাধা জঙ্গলে বসে কাঁদছে। অন্য এক গাধা রাস্তা দিয়ে যাচ্ছিল।
২য় গাধা: কী হলো, কাঁদছ কেন?
১ম গাধা: আমি আগে এক ধোপার বাড়িতে কাজ করতাম,সে বাড়ির কথা খুব মনে পড়ছে।
২য় গাধা: মালিক বুঝি তোমাকে খুব আদর করত?
১ম গাধা: না রে ভাই, খুব মারত।

চোখের অপারেশনের

চোখের অপারেশনের পর ব্যান্ডেজ খুলে ডাক্তাররোগীকে জিজ্ঞাসা করলেন, ‘কি দেখতে পাচ্ছেন?’
চাপাবাজ রোগী জবাব দিলো,"ওহ! আমি তো কিছুই দেখতে পারছি না!!
আপনি আমার ভুল অপারেশন করেছেন সুতরাং টাকা দিবো না!!"
ডাক্তার রোগীর শয়তানী বুঝতে পেরে তাকে বসিয়ে রেখে এক সুন্দরী নার্সকে ডাক দিয়ে সম্পুর্ন নগ্ন করে রোগীর সামনে বসিয়ে দিলেন!!
কিছুক্ষন পর ডাক্তার দেখলেন রোগীটির পেনিস ধীরে ধীরে দারাচ্ছেঃ

Sunday, 27 April 2014

আমার ইয়েটা একটু ছোট

বল্টুর শরম অনেক বেশি। সামনে তার গার্লফ্রেন্ডরিপার জন্মদিন্, কিন্তু জন্মদিনের পোশাক টা পড়ে রিপার সামনে যেতে তার লজ্জা লাগতেছে। তো রিপা ব্যাপারটা খেয়াল করলো।
রিপাঃ জান্, তুমি এতো লজ্জা পাচ্ছো কেনো?
বল্টুঃ আমার একটা সমস্যা আছে।
...

Saturday, 26 April 2014

মুরগি বিক্রিতা

মা তার ছেলেকে ১০০ টাকা দিয়ে বললেন, যাও বাবা বাজার থেকে একটা মুরগি নিয়ে এসো!!
ছেলে বাজার থেকে মুরগি কিনে আনলে মা মুরগি দেখেবললেন, এতো রোগা পটকা মুরগি! রোগা পটকা মুরগি আমি নিব না! যাও ফেরত দিয়ে এসো!!
ছেলে মুরগি ফেরত দিতে গিয়ে দেখে দোকানে লেখা “বিক্রিত মাল ফেরত নেয়া হয় না”
এখন সে কি করবে!!
বাসায় গেলেতো মা আচ্ছা মত বকা দেবেন! ভাবতে ভাবতে হটাৎ তার মনে হল, তার এক খালাত বোন আছে! সে তাকে খুব আদর করেন,টাকাপয়সাও দেন! তার কাছে গেলেহয়ত একটা ব্যবস্থা হবে নিশ্চই!

Friday, 25 April 2014

সেক্স সম্পর্কে জ্ঞান

এক ছেলে সেক্স সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন করতে গেছে এক জ্ঞানী শিক্ষক এর কাছে !
ছেলে প্রশ্ন করলো , আচ্ছা সার সেক্স এর ফিলিংসটা কেমন?
... সার বলল, আঙ্গুল দিয়ে যখন তুমি নাক খচাও তখন একটা মজার ফিলিংস হয় , সেক্স বেপারতাও সেরকম !

অন্তর্বাস দেখার জন্য্

এক কিশোরী মেয়ে স্কার্ট পড়ে খেলতে যায়্, তো একদিন সে তার ছেলে বন্ধুর সাথে স্কার্ট পড়ে গেছে, ছেলেটা তাকে গাছে উঠতে বললো।
সে গাছে উঠায় ছেলেটা গাছের নিচে যায় দাড়ালো মেয়ে টার ।
মেয়েটা বাসায় যেয়ে তার মা কে বললো সব্।

Thursday, 24 April 2014

অলস লোক

অলস এক লোক বড়শিতে মাছ তুলে বসে আছে।
পাশ দিয়ে একজনকে যেতে দেখে কোমল স্বরে বললেন, ভাই মাছটা একটু খুলে দেবেন?
একটু বিরক্ত হয়েও মাছটা খুলে দিলেন লোকটি। তারপর বললেন, এত অলস আপনি! এক কাজ করেন- একটা বিয়ে করেন। ছেলেপেলে হলে আপনাকে কাজে সাহায্য করতে পারবে।

এই তুমি কাপড় ছারা কথা থেকে এসে হাজির হলা

এক লোক তার স্ত্রী কে ধোকা দিয়ে পাশের বাড়ির এক মেয়ের সাথে "sex" করত।
একদিন হঠাৎ কেউ একজন ঐ মেয়েটির বাড়ি চলে আসলো যখন তারা রতিক্রিয়ায় মগ্ন।
বেল বাজার সাথে সাথেই লোকটা কাপড় ছাড়াই দ্রুত তার বাড়ি চলে আসলো,
তার স্ত্রীঃ এই তুমি কাপড় ছারা কথা থেকে এসে হাজির হলা...?

স্বামীঃ আর বলো না, রাস্তায় আমাকে ডাকাতেরাধরে সব কিছু নিয়ে গেছে।
স্ত্রী খুব ভদ্র ভাবে উত্তর দিলোঃ যতসব দুষ্টু ডাকাত্,

Wednesday, 23 April 2014

মহিলা শিক্ষক ইংরেজি ক্লাস

মহিলা শিক্ষক ইংরেজি ক্লাস নিচ্ছেন।
মহিলা শিক্ষকঃ সবাই HAND দিয়ে একটা sentence লিখ। যে সবার আগে লিখতে পারবেতার জন্য আছে পুরস্কার ।
সবার আগে রাজুঃ My penis in your hand.
মহিলা শিক্ষকঃ এক থাপ্পর দিয়ে দাত ফেলে দিবো। এটা কি লিখছো?
.
.
.

Tuesday, 22 April 2014

এমন জিনেসের নাম বল তো যা ভিন্ন ভিন্ন নামে পরিচিতি হয়


এক শিক্ষক ক্লাসে ছাত্রদের জিজ্ঞেস করেন -এমন জিনেসের নাম বল তো যা ভিন্ন ভিন্ন নামে পরিচিতি হয়।
ছাত্র- চুল
শিক্ষক - কিভাবে ?

টি-শার্টে গাড়ী আগে কখনো দেখেন নি

ভাড়াটিয়ার আবার সুন্দরী একটা মেয়েও আছে।
একদিন সেই মেয়ে টি-শার্ট পরে বের হলো। পাপ্পু দেখলো মেয়েটার টি-শার্টে চমৎকার একটি গাড়ীর ছবি আঁকানো। সেদিকে একদৃষ্টিতে পাপ্পুকে তাকিয়ে থাকতে দেখে মেয়েটি জিজ্ঞেস করল-

... “কি ভাই, টি-শার্টে গাড়ী আগে কখনো দেখেন নি?”

I Love U Jaan!

ছেলে মেয়েকে বলছেঃ I Love U!! তুমি এই পৃথিবীর সব থেকে সুন্দর নারী!!

মেয়েঃ আচ্ছা?? কিন্তু তোমার পেছনে আমার থেকেও অনেক সুন্দর একটি মেয়ে দাঁড়িয়ে আছে!!

ছেলেটা পেছন ফিরে দেখে কিন্তু সেখানে কেউ ছিল না!!

Monday, 21 April 2014

বল্টুর বাসায় গরুর খামার

বল্টুর বাসায় গরুর খামার আছে। অনেক গরু। তো প্রতিদিন সকালে গরুর দুধ দুইতে দুইতে ওর বাবার হাত ব্যথা হয়ে যায়। তো একদিন বল্টুর বাবা বাজার থেকে একদিন একটা মেশিন
নিয়ে আসলো। ওইটা গাভীর স্তনে লাগিয়ে বোতাম চাপলে অটো দুধ বের হতে থাকে।
বল্টু তখন কিছুটা বড় হইছে। তো ওর মাথায় একটা দুষ্টু বুদ্ধি আসলো। কেমন আরাম লাগে দেখার জন্য সে দুধ দোওয়ার মেশিনটা জায়গামত (গোপন অঙ্গে) লাগিয়ে সে আরামে উপভোগ করতে লাগলো। তো কিছুক্ষণ পর বল্টুর আউট হয়ে গেলো। কিন্তু মেশিন থামে না। সে তন্ন তন্ন করে খুঁজেও মেশিনের আর কোনো বোতাম পায়না। ইতিমধ্যে তার আরো একবার হয়ে গেলো। কিন্তু মেশিন থামে না। চলছেই। বল্টু দেখে যে মাত্র একটাই বোতাম মেশিনে, বার বার সে ওইটাই চেপে চলে কিন্তু মেশিন থামে না। ইতিমধ্যে আর একবার হয়ে গেলো। বল্টু পাগল
হয়ে গিয়ে ক্যাটালগ খুজে দেখে সেখানে লিখা.

এক মেয়ে আধঘন্টা ফোনে কোথা বলার পর

এক মেয়ে আধঘন্টা ফোনে কোথা বলার পর ফোন রেখে দেওয়ায় তার বাবা খুশি হয়ে জিজ্ঞাসা করলেনঃ "কার সাথে কথা বলছিলে?? সাধারণত তুমি তো ২ ঘন্টার আগে ফোন ছাড়ো না!! আজ ৩০ মিনিতেই রেখে দিলে যে!! ভালো ভালো!! মেয়ের উন্নতি হচ্ছে!!"
মেয়েটি গম্ভীর মুখে জবাব দিলোঃ

টিভিতে একজন কৃষকের ইন্টারভিউ

টিভিতে একজন কৃষকের ইন্টারভিউ চলছে...
উপস্থাপকঃ আপনি ছাগল রে কি খাওয়ান??
কৃষকঃ কোনটারে? কালো না সাদা??
উপস্থাপকঃ কালোটারে...
কৃষকঃ ঘাস...
উপস্থাপকঃ আর সাদা??
কৃষকঃ ওইটারেও ঘাসই খাওয়াই...

Sunday, 20 April 2014

স্ত্রী : জানো আজ একটা বাজে জিনিস হয়েছে!


স্ত্রী : জানো আজ একটা বাজে জিনিস হয়েছে!
স্বামি : কী?
স্ত্রী : আজ গোছল করে কাপড় বদলানোর সময় ভুলে সদর দরজা খোলা ছিল!
স্বামি :কী সর্বনাশ! কোন সমস্যা হয়নিতো?
স্ত্রী : সমস্যা হয়নি মানে! আমি কেবল ব্রা পরছি এমন সময় তোমার বন্ধু ঘরে ঢোকে! কি লজ্জার ব্যাপার বলোতো!
স্বামি : (রাগত ও আশ্চর্য গলায়) তখন তুমি কি করলে?

প্রেমিকঃ জান, দারুন একটা মুভি এসেছে


প্রেমিকঃ জান, দারুন একটা মুভি এসেছে!! প্রতি শো হাউসফুল হচ্ছে!! তিনটা এডভান্স টিকিট কেটে এনেছি!!

প্রেমিকাঃ তিনটা টিকিট কেন!? আমরা তো মাত্র দুজন!!

আর সেই পুরনো গল্প

এক বয়স্ক লোক অনেকদিন পর তার ভার্সিটির হোস্টেলে গেলেন!! তিনি ভার্সিটি পড়াকালীন যেই রুমে থাকতেন সেই রুমে নক করার পর এক কমবয়সী ছেলে দরজা খুলল!!

লোকটি বললেনঃ "আমি আগে যখন এই ইউনিভার্সিটিতে পরতাম, তখন হোস্টেলের এই রুমটায় থাকতাম!! আমি কি একটু ঘুরে দেখতে পারি রুমটা?? পুরনো স্মৃতিগুলো একটু ঝালিয়ে নিতাম!!

ছেলেটি ঢুকতে দিলো!!

উচ্চমানের ভদ্র ছাত্র



Saturday, 19 April 2014

বলুন তো কেন বিয়ের সময় নতুন বউ ঘোমটা দিয়ে থাকে


বলুন তো কেন বিয়ের সময় নতুন বউ ঘোমটা দিয়ে থাকে??
.
.
পারছেন না??

ভাবুন!!
.
.ভাবুন!!
.
আরেকটু ভাবুন!!
.

কারন,

তোমার সন্তান


এক দম্পতি তাদের বিয়ের ৪০ বছর পূর্তি অনুষ্ঠান পালন করছে!! অনুষ্ঠান শেষে জামাই বউ দুজনেই খুব ক্লান্ত!! মেহমানদের সবাইকে বিদায় করে তারা ছেলে মেয়েদের ঘুমুতে পাঠিয়ে দিয়ে নিজেরাও ঘুমুতে গেলো!!

বিছানায় শোওয়ার পর জামাই বউকে জড়িয়ে ধরে বলল, "বিয়ের ৪০ বছর হয়ে গেলো!! আমাদের মধ্যে অনেকবারই ঝামেলা হয়েছে!! পরে আল্লাহর রহমতে সব ঠিকঠাকও হয়ে গিয়েছে!!"

বউ হেসে বলল, "জানি গো, জানি!!

সান্টা সিংইয়ের স্মাগলিং

সান্টা সিং বাইকে করে ওয়াঘা চেকপোস্ট দিয়ে পাকিস্তান যাচ্ছিলো। পাকিস্তানি রেঞ্জার্স ওকে আটকে জিজ্ঞেস করলো, "সর্দার, তোমার বাইকের দুপাশে যে দুটো বড়ো বস্তা ঝুলিয়ে নিয়ে যাচ্ছো, সেটাতে কি আছে?"
সান্টা বললো, "জনাব, আমার দাদুর ছোটবেলার বন্ধু দেশভাগের সময় পাকিস্তানে চলে গেছিলেন। কিন্তু আজও নিজের গাঁয়ের কথা ভুলতে পারেন নি। আমি যতবারই পাকিস্তানে যাই, ওনার জন্য দুব্যাগ গ্রামের মাটি নিয়ে যেতে হয়।"
রেঞ্জার্সের অফিসার বললো, "শালা, আমাকে ঢপ দিচ্ছো? দাঁড়াও দেখাচ্ছি মজা!" বলেই গার্ডের দিকে তাকিয়ে বললো, "এই বাইক আর ব্যাগদুটো নিয়ে ভালো করে চেক কর।"

আমার এপেন্ডিসাইটিসের অপারেশানটা কোথায় হয়েছিল

এক মহিলা বাসে সিট না পেয়ে বললঃ
"যে আমাকে সিটে বসতে দিবেন, তাকে আমি দেখাবো আমার এপেন্ডিসাইটিসের অপারেশানটা কোথায় হয়েছিল!!"
সাথে সাথে চান্দু সরে গিয়ে সিটে জায়গা করে দিল। মহিলাটি জানালার পাশে বসে আছে। এবার চান্দু বললঃ
"এখন দেখান আপনার অপারেশানটি কোথায় হয়েছিল?!"

Monday, 14 April 2014

দুই মেয়ে ট্রেনে করে যাচ্ছে

দুই মেয়ে ট্রেনে করে যাচ্ছে
মেয়ে-১= “তোর কিরকমস্বামী চাই?”
মেয়ে-২= “কোটিপতি স্বামী”
মেয়ে-১= “আর যদি কোটিপতি না পাওয়া যায়?”

Sunday, 13 April 2014

বিয়ের তিনদিন আগে এক্সিডেন্ট

এক তরুন তার বিয়ের তিনদিন আগে এক্সিডেন্ট করে নিচে ঠিক জায়গা মত আঘাত পেল। ব্যাথায় কোঁকাতে কোঁকাতে সে ডাক্তারের কাছে গেল। ‘ডাক্তার সাহেব, দেখেন কিঅবস্থা, এদিকে তিনদিন পরে আমার বিয়ে, আর আমার হবু বৌ সবদিক দিয়ে কুমারী।

কে.জি স্কুলের ছেলে

কে.জি স্কুলের এক ছেলে এক মেয়েকে বলতেছে-
ছেলে : আমি তোমারহাতে একটা কিস দিতে পারি????
মেয়ে : হাতে কেন????

মাতবরের বাড়িতে ডাকাত

এক গ্রামের মাতবরের বাড়িতে ডাকাত পড়লো... ডাকাতি করতে বাধা দেয়ায় ডাকাতরা মাতবরকে বাড়ির গোয়াল ঘরে উলংগ করে দড়ি দিয়ে বেধে রেখে দিলো। গোয়ালে ছিল একটি গরু ও বাছুর।
সকালে যখন প্রতিবেশিরা এসে মাতবরের বাধন খুলে উদ্ধার করলো তখন মাতবর ছাড়া পেয়েই কোথায় সে গায়ে কাপড় দিবে ?? তা না করে .....একটা লাঠি যোগাড় করে বাছুরটা কে সপাটে পেটাতে লাগলো আর বলতে থাকলো...আর বলতে থাকলো

সাহস দিচ্ছে

একদিন এক মাষ্টার আর এক ছাত্র
রাস্তা দিয়ে হাটতেছে
এই সময় ছাত্র দেখতে পেল একটি পুকুরের
মধ্যে একটি হাঁসের উপর অন্য এটি হাঁস উঠে আছে।
ছাত্র তখন স্যারকে বলল----
ছাত্রঃ স্যার হাঁস গুলো কি করছে।
স্যারঃ লজ্জায় কি বলবে বোঝতে না পেরে বলল
একটা হাঁস অন্য হাঁসকে সাহস দিচ্ছে।
একদিন প্রচন্ড বৃষ্টি হচ্ছে স্যারের

সান্টা সিং বুদ্ধিমান

ভারত থেকে লাহোরের দিকে চলেছে সমঝোতা এক্সপ্রেস।
একটি কামরায় মাত্র ৪ জন যাত্রী। একজন দারুণ সুন্দরী তরুণী, একজন মাঝবয়সী মহিলা, একজন পাকিস্তানী সৈনিক এবং চতুর্থজন হলো সান্টা সিং।
ট্রেন হঠাৎ ঢুকল একটা অন্ধকার টানেলের ভিতর। কামরার ভেতরটা নিমেষে অন্ধকার হয়ে গেল।
সেই অন্ধকারের ভেতর হঠাৎ শোনা গেল চুম্বনের শব্দ এবং ঠিক তারপরেই একটা বিরাশী সিক্কার চড়ের আওয়াজ।

রাঁচিতে জওহরলাল নেহেরু

ভারতের প্রথম প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহেরু ১৯৪৯ সালে রাঁচির মানসিক হাসপাতাল অর্থাৎ পাগলা গারদ পরিদর্শনে গিয়েছিলেন। এরপর পাগলা গারদের ভেতরে যা ঘটেছিল, তার জন্য কেউই তৈরী ছিলেন না।

পেন্সিল শার্পনার

-দোস্ত তোর নতুন পিএ মেয়েটা ত হেভি মাল।
- তোর ভালো লাগছে।
- কইলাম না, কঠিন চিজ। যা ফিগার... মাই গড। অফিসে এমন কড়া জিনিস পাইলি কই ?
- এই ত নতুন আসছে।
-আমার পি এ টা একটা বুড়াভাম। তুই ত শালা ভালা ফস্টি নস্টি করার সুযোগ পাইলি।
- ফস্টি নস্টির সুযোগ নাই। এইটা একটা রোবট।
- তাই নাকি?

বলুন তো কি দাঁড়ালো


একজন স্ট্রীট ম্যাজিশিয়ান ম্যাজিক দেখাচ্ছেন কোন এক আবাসিক এলাকার এক রাস্তার উপরে। সবাই সাগ্রহে তাকে ঘিরে আছে। মূল আকর্ষণ হচ্ছে নাকি তার ম্যাজিক স্পেল আউড়ানোর সাথে সাথে কোথাও নাকি কিছু দাঁড়িয়ে যাবে আর সবাই মিলে যদি ফুঁ দেয় তবে তা বসে পড়বে।

প্রথম বারঃ হ্রিঙ্গা ত্রিঙ্গা ছট্টে... সামনে দাঁড়িয়ে থাকা বাচ্চাটির পকেট থেকে পেন্সিলটি উঠে দাঁড়িয়ে গেলো। সবাই মিলে একযোগে ফুঁ... বসে পড়লো পেন্সিলটি তার জায়গায়।

দ্বিতীয় বারঃ ম্যাজিশিয়ানের মন্ত্র... মাঝখানে দাঁড়িয়ে থাকা একজন ভদ্রমহিলার মাথা থেকে তার হেয়ার পিনটি উঠে দাঁড়ালো। সবাই আবারো ফুঁ... বসে পড়লো হেয়ার পিন।

Saturday, 12 April 2014

ক্লাস টু-তে এক পিচ্চি প্রেগন্যান্ট

ক্লাস টু-তে এক পিচ্চি মেয়েউঠে দাঁড়িয়ে বলছে, ‘টিচার টিচার, আমার আম্মু কি প্রেগন্যান্ট হতেপারবে?’
টিচার বললেন, ‘তোমার আম্মুরবয়স কত সোনা?’
পিচ্চি বললো, ‘চল্লিশ।’
টিচার বললেন, ‘হ্যাঁ, তোমার আম্মু প্রেগন্যান্ট হতে পারবেন।’
পিচ্চি এবার বললো, ‘আমার আপু কি প্রেগন্যান্ট হতে পারবে?’
টিচার বললেন, ‘তোমার আপুর বয়স কত সোনা?’
পিচ্চি বললো, ‘আঠারো।’

Friday, 11 April 2014

স্যার, দরজা জানালা বন্ধ করে দিন

ছাত্রীঃ স্যার, দরজা জানালা বন্ধ করে দিন!
স্যারঃ কেন?
ছাত্রীঃ আপনাকে একটা চমৎকার জিনিস দেখাব!!!
স্যারঃ সত্যি??? (অবাক হয়ে)

ছাত্রীঃ হ্যাঁ, আগে দরজা জানালা সব কিছু বন্ধ করে দিন, যাতে আলো না আসে!!
স্যারঃ তারপর?? আর কিছু??
ছাত্রীঃ আমার কাছে আসেন।
স্যারঃ ওহ!! তারপর? আর কি করবো বলো?

Tuesday, 8 April 2014

বিয়ের পর বাসর

কেরামত বিয়া করছে...
বাসর
রাতে বৌ কে আদর
করতে গেল....
বৌ তো রেগে গেল!
বৌ: খবরদার! আমার কাছে আসবেনা!
কেরামত: (অবাক হয়ে) কেন?!?

ধনী বাবা, গরীব বাবা

দুজন লোক, যারা স্কুলজীবনে বন্ধু ছিল, তাদের মধ্যে অনেক দিন পরে হঠাৎ করে দেখা হয়ে গেল। হাই, হ্যালোর পর তারা দুজনে কে কি করছে সেসব নিয়ে আলোচনা হচ্ছিল। দেখা গেল যে এক বন্ধু খুব ধনী হয়ে গেছে এবং অন্যজন গরীব রয়ে গেছে।

ধনী বন্ধু বললো, "আজকে আমার কাছে বারোটা গাড়ি, চারখানা বাংলো, তিনটে কমার্শিয়াল বিল্ডিং, পাঁচটা ফ্যাক্টরি আর সাতখানা শোরুম আছে। তোর কাছে কি আছে?"

গরীব বন্ধু একটু মুচকি হেসে বললো,

পচাদার দ্বিতীয় বিবাহবার্ষিকী

শপিং মল থেকে বেরোনোর সময় হঠাৎ দেখি আমাদের পচাদা হাতে একটা সুন্দর করে গিফট র‍্যাপ করা ছোট্ট প্যাকেট নিয়ে আসছে। তো পচাদাকে জিজ্ঞেস করলাম কারজন্য ওটা কিনে নিয়ে যাচ্ছে।
পচাদা বললো, "আর বলিস না, পরশু দিন তো আমার বিবাহবার্ষিকী, তাই তোর বৌদির জন্য এটা কিনলাম।"